‘নতুন শিক্ষাক্রম দক্ষ ও মানবিক মানুষ হতে শেখাবে’

বুধবার, ১৮ জানুয়ারি ২০২৩ | ৭:২২ অপরাহ্ণ | 5 বার

‘নতুন শিক্ষাক্রম দক্ষ ও মানবিক মানুষ হতে শেখাবে’

শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, নতুন শিক্ষাক্রম শিক্ষার্থীদের দক্ষ ও মানবিক মানুষ হতে শেখাবে। এবার যে বই গেছে সেখানে বলা আছে, পরীক্ষামূলক সংস্করণ। আমরা বিভিন্ন পর্যায়ের শিক্ষকদের সাথে বসেছি। এরপরও অনিচ্ছাকৃত ভুল থাকতে পারে।

মঙ্গলবার (১৭ জানুয়ারি) রাতে চাঁদপুর প্রেসক্লাবে নবনির্বাচিত কমিটির অভিষেক অনুষ্ঠানে শিক্ষামন্ত্রী এসব কথা বলেন।
অনুষ্ঠানে জাতীয় প্রেসক্লাবের সভাপতি ফরিদা ইয়াসমিন, সাধারণ সম্পাদক শ্যামল দত্ত, চাঁদপুরের শিল্পপতি এম এন মুরাদ খানকে সংবর্ধনা দেওয়া হয়।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘নতুন শিক্ষাক্রম নিয়ে কথা হচ্ছে। কারণ, যে পদ্ধতিতে পাঠদান করা হয় তা রূপান্তর করা না হলে চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা পারব না। আমরা শুধু মুখস্থ করেছি। কাজে লাগাতে পারিনি। কিন্তু নতুন শিক্ষাক্রমে শেখানোর পদ্ধতিতে পরিবর্তন আসবে। প্রতিটি শিক্ষার্থী করে করে শিখবে। শেখাটা যেন হয় আন্দময়, পরীক্ষা ভিতি যেন না আর থাকে সেই রূপান্তরটা করা হবে।’

জাতীয় প্রেস ক্লাবের সভাপতি ফরিদা ইয়াসমিন প্রথমেই নবনির্বাচিত চাঁদপুর প্রেস ক্লাবের নেতৃত্বকে অভিনন্দন জানিয়ে বলেন, ‘চাঁদপুর আমাদের কাছে খুবই গুরুত্বপূর্ণ জায়গা। সাংবাদিকতায় চাঁদপুরের বর্ণাঢ্য ইতিহাস আছে। সাংবাদিকতা মানে দায়িত্ববোধের পেশা। মানুষের জন্য কাজ করার পেশা। সাংবাদিকদের অবশ্যই দায়িত্বশীল হতে হবে। আগামীর নির্বাচনের কথা এসেছে অনেকের বক্তব্যে। আগামীর নির্বাচন অবশ্যই গুরুত্বপূর্ণ। দেশের উন্নয়ন আজ বিশ্বের বিস্ময়। এই উন্নয়ন কারা এগিয়ে নিতে পারবে সে হিসাব করলে আপনারা সিদ্ধান্ত নিতে পারবেন। যে স্বপ্ন বঙ্গবন্ধু দেখেছিলেন সেই স্বপ্ন আজ এগিয়ে নিচ্ছেন তারই কন্যা। যে দেশ মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে সৃষ্টি হয়েছে, রক্তের বিনিময়ে হয়েছে সেটি আমাদের মনে থাকলে আমরা কক্ষচ্যুত হবো না। সফলতার কোনো শর্টকাট রাস্তা নেই। সফল হতে হলে লক্ষ থাকতে হবে।’

শ্যামল দত্ত বলেন, ‘দেশের সবচেয়ে বড় জনশক্তি তরুন। ৮১৭টি দৈনিক বের হয় দেশ থেকে অথচ ১৪ কোটি মোবাইল গ্রাহক। ইদানিং দেখছি অনেকেই টেলিভিশন দেখছে না, দেখছে ইউটিউব, রিল, ভিডিও ক্লিপ। সামনে কঠিন সময় নির্বাচন। নির্বাচন কঠিন, সহজ, সরল হোক সেখানে মুক্তিযুদ্ধের পক্ষকে জিততেই হবে এর বিকল্প নেই। গণমাধ্যমকর্মী হিসেবে ভালো কাজের প্রসংশা করবো, মেট্রোরেলের প্রশংসা করবো, পদ্মা সেতুর, রাস্তাঘাটের প্রশংসা করবো। আবার যেটি জনগণের পক্ষে যাচ্ছে না সেটির সমালোচনাও করবো এটিই গণমাধ্যমকর্মীদের কাজ।’

চাঁদপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি এএইচএম আহসান উল্লাহর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে জেলা প্রশাসক কামরুল হাসান, পুলিশ সুপার মো. মিলন মাহমুদ, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ওচমান গণি পাটওয়ারী, পৌর মেয়র মো. জিল্লুর রহমান, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম নাজিম দেওয়ান উপস্থিত ছিলেন।

Development by: visionbd24.com