‘পরিস্থিতি বিবেচনায় যেকোনো ব্যবস্থা নিতে পারবে সেনাবাহিনী’

শুক্রবার, ২১ ডিসেম্বর ২০১৮ | ৫:২০ অপরাহ্ণ | 634 বার

‘পরিস্থিতি বিবেচনায় যেকোনো ব্যবস্থা নিতে পারবে সেনাবাহিনী’

ভোটের মাঠে সেনাবাহিনীকে বিচারিক ক্ষমতা দেওয়ার যে দাবি বিএনপি জানিয়ে আসছিল, সে প্রসেঙ্গে এক প্রশ্নে নির্বাচন নির্বাচন কমিশনার রফিকুল ইসলাম বলেছেন, নির্বাচনী দায়িত্বে থাকা পুলিশ, র‌্যাব বা সেনাবাহিনী, কারও হাতেই বিচারিক ক্ষমতা নেই।

তিনি বলেন, যার হাতে অস্ত্র থাকে তার কিন্তু বিচারিক ক্ষমতা থাকে না। কারণ এটা বাংলাদেশের সংবিধানের জন্য স্ববিরোধী। যদি কোনো অঘটন ঘটে তা হলে সেনাবাহিনী যেমন যে কোনো লোককে গ্রেপ্তার করতে পারে, সহিংস ঘটনা ঘটলে তারা ফায়ারও করতে পারে। পরে যদি প্রয়োজন হয়, ম্যাজিস্ট্রেটের কাছ থেকে অনুমতি নিতে পারবেন।

আজ শুক্রবার রাজশাহী শিল্পকলা একাডেমিতে এক কর্মশালার পর সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন। রফিকুল ইসলাম বলেন, আর জীবন রক্ষার জন্য, যদি তার জানমালের ক্ষতি হয়ে যায়, তাহলে এমনিতেই উনি ফায়ার ওপেন করতে পারেন, অ্যারেস্ট করতে পারেন।

নির্বাচন কমিশনার বলেন, বাংলাদেশে রাজনৈতিক সংস্কৃতিতেই আছে যে… এমনকি রাজনীতি ছাড়াই, আমরা এমনিতেই একটু …মারামারি… আমরা একটু উত্তপ্ত, গরম বাক্য বিনিময় করতে অভ্যস্ত। আর যখন শিডিউল ঘোষণা করা হয়, তখন হতেছে আরেকটু গরম হয়ে যায়। আর এই উত্তাপ না থাকলে পরে হতেছে ভালো লাগে না।

Development by: visionbd24.com