ফখরুলকে আ’লীগের প্রশ্ন

বিজয়ের মাসে পাকিস্তান দূতাবাসে যাতায়াত কেন?

রবিবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০১৮ | ৩:৫৩ অপরাহ্ণ | 558 বার

বিজয়ের মাসে পাকিস্তান দূতাবাসে যাতায়াত কেন?

পাকিস্তান দূতাবাসে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুলের সাক্ষাৎ এবং গোপন বৈঠক নির্বাচন বানচালের ষড়যন্ত্র বলে মনে করছে আওয়ামী লীগ। সেইসঙ্গে বিএনপির মনোনয়ন বাণিজ্য এবং বিএনপি অফিসে নিজেদের মধ্যে হামলা-ভাঙচুরের ঘটনা নির্বাচনের সুষ্ঠু পরিবেশ বিঘ্নিত করবে বলেও আওয়ামী লীগ মনে করে। রোববার দুপুরে ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে দলের পক্ষ থেকে সংবাদ সম্মেলনে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহমান এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, একটি রাষ্ট্রের সঙ্গে আরেকটি রাষ্ট্রের কূটনৈতিক সম্পর্কের কারণে দূতাবাসে যাতায়াত থাকতে পারে। তবে বিজয়ের এই মাসে আসন্ন নির্বাচনকে সামনে রেখে পাকিস্তান দূতাবাসের কর্মকর্তাদের সঙ্গে সাক্ষাৎ জনমনে প্রশ্নের সঞ্চার করে। একদিকে বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত লন্ডনে তারেক রহমানের সঙ্গে পাকিস্তানি গোয়েন্দা সংস্থা আইএসআই’র গোপন বৈঠক, অন্যদিকে পাকিস্তানি দূতাবাসে মির্জা ফখরুলের সাক্ষাৎ ও গোপন বৈঠক ষড়যন্ত্রের আভাস দেয়।

আব্দুর রহমান বলেন, দুই বৈঠক একই সূত্রে গাঁথা। সেই জায়গা থেকে আমরা মনে করি, এই সাক্ষাৎ আসন্ন নির্বাচন বানচালে ষড়যন্ত্রের অংশ এবং মুক্তিযুদ্ধের চেতনার রাজনীতিকে বিনষ্ট করার দুরভিসন্ধি। বিএনপি কার্যালয়ে হামলা ও ভাঙচুর প্রসঙ্গে তিনি বলেন, গতকাল (শনিবার) ও আজকে বিএনপির মনোনয়ন বাণিজ্য নিয়ে সারাদেশে তাদের নেতাকর্মীরা যে সন্ত্রাস ও অগ্নিকাণ্ড চালাচ্ছে, তারই অংশ হিসেবে আমরা দেখতে পাই বিএনপির গুলশান ও পল্টন কার্যালয়ে ভাঙচুর। এই হামলা কেবল আসন্ন নির্বাচনের পরিবেশকেই বিঘ্নিত করে না, গণতান্ত্রিক সংস্কৃতির সুষ্ঠু ধারাকেও ব্যাহত করে।

Development by: visionbd24.com