বড় পুকুরিয়া দুর্নীতি : ৬ মাসের মধ্যে নিষ্পত্তির নির্দেশ

সোমবার, ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ | ৪:৪৮ অপরাহ্ণ | 414 বার

বড় পুকুরিয়া দুর্নীতি : ৬ মাসের মধ্যে নিষ্পত্তির নির্দেশ

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াসহ অন্য আসামিদের বিরুদ্ধে করা বড় পুকুরিয়া কয়লা খনি দুর্নীতি মামলা ছয় মাসের মধ্যে নিষ্পত্তির নির্দেশ দিয়েছেন মহামান্য হাইকোর্ট। মামলা বাতিলে সাবেক মন্ত্রী ব্যারিস্টার আমিনুল হকের করা আবেদনের প্রেক্ষিতে জারি করা রুল খারিজ করে আজ সোমবার বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি কে এম হাফিজুল আলমের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ নির্দেশনা দেন।

আদালতে দুর্নীতি দমন কমিশনের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী খুরশীদ আলম খান। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এ কে এম আমিন উদ্দিন মানিক। অন্যদিকে ব্যারিস্টার আমিনুল হকের পক্ষে ছিলেন ব্যারিস্টার অনীক আর হক। পরে খুরশীদ আলম খান সাংবাদিকদের জানান, মামলা বাতিলে ব্যারিস্টার আমিনুল হকের আবেদন খারিজ করে দিয়েছেন আদালত। এখন নিম্ন আদালতে এ মামলা চলতে আর কোনো বাধা নেই। এছাড়া এই মামলা আগামী ছয় মাসের মধ্যে নিষ্পত্তি করার জন্যও নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল আমিন উদ্দিন মানিক বলেন, বড়পুকুরিয়া কয়লাখনি দুর্নীতি মামলার ১৬ আসামির মধ্যে ছয়জন বিভিন্ন সময়ে মারা গেছেন। এখন ১০ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠনের শুনানি হবে। এ মামলার বৈধতা নিয়ে খালেদা জিয়াও একটি রিট আবেদন করেছিলেন। ২০১৫ সালের ১৭ সেপ্টেম্বর বিচারপতি মো. নূরুজ্জামান ও বিচারপতি আবদুর রবের হাই কোর্ট বেঞ্চ তা খারিজ করে দেয়। পরে আপিল বিভাগেও তা খারিজ করে দেয়।

বিগত সেনা নিয়ন্ত্রিত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলে ২০০৮ সালের ২৬ ফেব্রুয়ারি সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া এবং তার মন্ত্রিসভার ১০ সদস্যসহ ১৬ জনের বিরুদ্ধে বড় পুকুরিয়া কয়লা খনি দুর্নীতি মামলা হয়। ওই বছর ৫ অক্টোবর ১৬ জনের বিরুদ্ধেই অভিযোগপত্র দেয় দুদক। চীনা প্রতিষ্ঠান কনসোর্টিয়াম অফ চায়না ন্যাশনাল মেশিনারিজ ইম্পোর্ট অ্যান্ড এক্সপোর্ট করপোরেশনের (সিএমসি) সঙ্গে বড় পুকুরিয়া কয়লা খনির উৎপাদন, ব্যবস্থাপনা ও রক্ষণাবেক্ষণ চুক্তি করার মধ্য দিয়ে রাষ্ট্রের প্রায় ১৫৮ কোটি ৭১ লাখ টাকার ক্ষতি করার অভিযোগ আনা হয় অভিযোগপত্রে।

Development by: visionbd24.com