মমতার নেতৃত্বে থাকা পশ্চিমবঙ্গের সরকার অগণতান্ত্রিক

শুক্রবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০১৮ | ৭:৫৪ অপরাহ্ণ | 571 বার

মমতার নেতৃত্বে থাকা পশ্চিমবঙ্গের সরকার অগণতান্ত্রিক

মমতা ব্যানার্জির নেতৃত্বে পশ্চিমবঙ্গে অগণতান্ত্রিক সরকার চলছে বলে অভিযোগ করেছেন ভারতের ক্ষমতাসীন দল বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ। তিনি জানান, পশ্চিমবঙ্গে বিজেপির সমর্থন বৃদ্ধিতে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী ভয় পেয়েছেন আর তাই ‘গণতন্ত্র বাঁচাও যাত্রা’র মোড়কে যে রথযাত্রা হওয়ার কথা ছিল তার অনুমতি দেয়নি।

লোকসভা ভোটের আগে পশ্চিমবঙ্গে দলের সংগঠনকে আরও মজবুত করার লক্ষ্যে শুক্রবারই পশ্চিমবঙ্গের কোচবিহার জেলার ঝিনাইডাঙা থেকে প্রথম পর্বের রথযাত্রার উদ্বোধন করার কথা ছিল বিজেপি সভাপতি অমিত শাহের। কোচবিহার ছাড়াও আরও দুইটি রথযাত্রা হওয়ার কথা ছিল দক্ষিণ চব্বিশ পরগনা জেলার গঙ্গাসাগর এবং বীরভূমের তারাপীঠ থেকে। পৌরাণিক রথের সাজে সাজানো তিনটি ভলভো বাস ঘুরে বেড়াবে রাজ্যের ৪২ টি লোকসভা ও ২৯৪ টি বিধানসভা এলাকা। কিন্তু আইন শৃঙ্খলা অবনতির আশঙ্কায় প্রথমে রাজ্য সরকার সেই রথযাত্রায় অনুমতি দিতে অস্বীকার করে পরে বৃহস্পতিবার কলকাতা হাইকোর্টের তরফেও জানিয়ে দেওয়া হয় রথযাত্রায় অনুমতি দেওয়া যাবে না। এরপরই শুক্রবার দিল্লিতে সংবাদ সম্মেলন করে মমতাকে তোপ দেগে বিজেপি সভাপতি বলেন ‘ক্ষমতার অপব্যবহার করে পশ্চিমবঙ্গে গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়াকে শ্বাসরোধ করছে। এটা সম্পূর্ণ অগণতান্ত্রিক।’

রথযাত্রা স্থগিত হয়ে যাওয়ায় সরাসরি মমতাকেই দায়ী করে অমিত শাহ বলেন, তার অভিমত ‘পঞ্চায়েত নির্বাচনের পর বিজেপিকে এখন ভয় পাচ্ছেন মমতা। আর সেই কারণেই এই রথযাত্রাকে থামাতে চাইছে। কিন্তু আমি বুঝতে পারছি না কেন তিনি ভয় পেয়েছেন। তবে আমার কাছে সেই ভয় দূর করার কোন সমাধান নেই। এটা জনগণের সিদ্ধান্ত তারাই বিজেপিকে সমর্থন করছে।’

বিজেপি সভাপতি পরিস্কার জানিয়ে দেন ‘যতই বল প্রয়োগ করা হোক, বিজেপির প্রস্তাবিত তিনটি রথযাত্রাই হবে এবং আমি নিজে তার নেতৃত্ব দেবো। বিজেপি আইনি লড়াই থেকে সরে আসবে না। প্রয়োজনে শীর্ষ আদালতে যাবো। আমাদের দলের কর্মীরা মমতা ব্যানার্জির কৌশলের কাছে মাথা নত করবে না। বিজেপির কর্মীরা মমতার দমন নীতিকে ভয় পায় না। বাংলায় সুশাসন ফিরিয়ে আনতে আমরা প্রতিজ্ঞাবদ্ধ।’

তার অভিযোগ ‘গত সাত বছর ধরে এরাজ্যে তৃণমূলের অপশাসন চলছে। মমতা ব্যানার্জির শাসনকালে শিক্ষা, বালু, কয়লা, গবাদি পশু সহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে পশ্চিমবঙ্গে মাফিয়ারাজ চলছে। আর তৃণমূলের মন্ত্রীরাই এই মাফিয়ারাজ চালাচ্ছে। রাজ্যে এখন জগাই-মাধাই সরকার চলছে। রাজ্যে নারী ও শিশুদের ওপর সহিংসতার মাত্রা বেড়েছে, রাজনৈতিক হত্যায় অন্য রাজ্যের চেয়ে পশ্চিমবঙ্গ শীর্ষে, শিক্ষায় পিছিয়ে পড়ছে। একটা সময় যেখানে রবীন্দ্রসঙ্গীত শোনা যেতো, সেখানে বোমার শব্দ শোনা যায়।’

Development by: visionbd24.com