হিলারির থেকেও বেশি ভোট পাওয়ার সম্ভাবনা বাইডেনের

মঙ্গলবার, ০৩ নভেম্বর ২০২০ | ৭:৩৪ পূর্বাহ্ণ | 134 বার

হিলারির থেকেও বেশি ভোট পাওয়ার সম্ভাবনা বাইডেনের

প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের আগের দিন জো বাইডেন ও তার সহযোগীরা পেনসিলভানিয়ায় ঘাঁটি গাড়লেন। ফলাফলের দিক থেকে পেনসিলভানিয়া, উইসকনসিন ও মিশিগানের গুরুত্ব অপরিসীম। মিশিগান ও উইসকনসিনে প্রচার সেরে ফেলেছেন বাইডেন। এবার পেনসিলভানিয়ার মন পেতে চাইছেন তিনি। তার ভাইস প্রেসিডেন্ট প্রার্থী কমলা হ্যারিস প্রচার করলেন জর্জিয়াতে।

অন্যদিকে ট্রাম্প ছুটে বেড়ালেন পাঁচটি রাজ্যে। মিশিগান, আইওয়া, ফ্লোরিডা, নর্থ ক্যারোলিনা, জর্জিয়ায় সভা করলেন। এই রাজ্যগুলি রিপাবলিকানদের ঘাঁটি বলে পরিচিত। ইতিমধ্যে ৯ কোটি ৩০ লাখেরও বেশি ভোটদাতা প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ভোট দিয়ে ফেলেছেন। করোনাকালে তাঁরা পোস্টাল ব্যালটের মাধ্যমে নিরাপদে ভোট দেয়া পছন্দ করেছেন। তার মানে ২০১৬-তে যত ভোট পড়েছিল, তার দুই তৃতীয়াংশ ভোট ইতিমধ্যেই পড়ে গেছে।

প্রেসিডেন্ট নির্বাচন নিয়ে সংবাদমাধ্যমগুলো সমানে সমীক্ষা করছে। সেই সমীক্ষা অনুযায়ী অ্যামেরিকার যে রাজ্যগুলিকে রাস্ট বেল্ট বলে, সেখানে ট্রাম্পের তুলনায় বাইডেন এগিয়ে আছেন। এই রাজ্যগুলির মধ্যে আছে, ওহাইও, মেরিল্যান্ড, ইন্ডিয়ানা, মিশিগানের একটা অংশ, উইসকনসিন, উত্তর ইলিনয়ের মতো রাজ্যগুলি। গতবার বাইডেনের দলের প্রার্থী হিলারি ক্লিন্টন এখানে যা ভোট পেয়েছিলেন, এবার বাইডেন তার থেকেও বেশি ভোট পেতে পারেন।
সমীক্ষাগুলোর মতে, ফ্লোরিডা, অ্যারিজোনার মতো সান বেল্টের রাজ্যগুলোতে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হচ্ছে। ওয়াশিংটন-এবিসি-র সমীক্ষা বলছে, ফ্লোরিডায় ট্রাম্প দুই পয়েন্টে এগিয়ে আছেন। কিন্তু নিউ ইয়র্ক টাইমস-সিয়েনার সমীক্ষায় ট্রাম্প তিন পয়েন্টে পিছিয়ে আছেন। ২০১৬-র নির্বাচনে ট্রাম্প এখানে ১২ পয়েন্টে এগিয়েছিলেন।

নিউ ইয়র্ক টাইমসের সমীক্ষা বলছে উইসকনসিনে বাইডেন এগিয়ে আছেন ১১ পয়েন্টে। সিএনএন বলছে, ট্রাম্প আট পয়েন্টে পিছিয়ে আছেন। পেনসিলভানিয়ার ক্ষেত্রে সমীক্ষার পূর্বাভাস, এখানে বাইডেন এগিয়ে। ওয়াশিংটন পোস্ট বলছে সাত পয়েন্টে, নিউ ইয়র্ক টাইমস ছয় পয়েন্টে ও আরেকটি সমীক্ষায় পাঁচ পয়েন্টে।

ট্রাম্প যদি নিশ্চিত হন যে তিনি জিতছেন, তা হলে মার্কিন সময় মঙ্গলবার রাতে ভোটের ফলাফল প্রকাশের আগেই তিনি নিজের জয় ঘোষণা করে দেবেন। এই কৌশল নিয়েই তিনি এগোচ্ছেন বলে জানিয়েছে একাধিক রিপোর্ট। ট্রাম্প অবশ্য একাধিকবার পোস্টাল ব্যালট নিয়ে তার আশঙ্কার কথা জানিয়েছেন। আর ইতিমধ্যে পোস্টাল ব্যালটে গতবারের তুলনায় ৬৭ শতাংশ ভোট পড়ে গেছে।

হিউস্টনে ড্রাইভ-থ্রু পদ্ধতিতে এক লাখ ২৭ হাজার ভোট পড়েছে। সেই ভোট বাতিলের দাবি জানিয়েছিল রিপাবলিকানরা। কিন্তু আদালতে তাদের আর্জি খারিজ হয়ে গেছে। সূত্র : ডয়চে ভেলে।

Development by: visionbd24.com